This time the Isollation Centre in the water the government of kerala, is trying to make a new effort.

জলেই এবার আইসোলেশন সেন্টার , অভিনব প্রচেষ্টা কেরল সরকারের

ভাস্বতী দাশ, প্রতিনিধি – জলের মধ্যে নিভৃতবাসের জন্য জুড়ি নেই হাউসবোটের। নিভৃতবাসের সেই বন্দোবস্তই কাজে লাগাতে চাইছে ভারতের কেরালা রাজ্য। হাউসবোট গুলোকে করোনা রোগীদের আইসোলেশন ওয়ার্ড বানানোর পরিকল্পনা করেছে রাজ্য সরকার।
করোনা-যুদ্ধে শামিল হয়ে ট্রেনের কামরাকে আইসোলেশন ওয়ার্ড বানানো হয়েছে। একই উদ্দেশ্যে হাউসবোট মালিকদের সংগঠনের সঙ্গে প্রাথমিক কথাবার্তা এগিয়েছে কেরালা রাজ্য সরকারের। প্রয়োজনে হাউসবোটকে করোনায় চিকিৎসা ও পর্যবেক্ষণের কাজে ব্যবহার করার প্রস্তাবে সম্মতি দিয়ে রেখেছেন মালিকেরা। তবে সরকার জানিয়েছে, পরিস্থিতি সাপেক্ষে তেমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে।

কেরালার আলপ্পুঝা জেলার ব্যাকওয়াটারে হাউসবোট দেশ ও বিদেশের পর্যটকদের কাছে অন্যতম আকর্ষণের কেন্দ্র। লাগোয়া বাথ-সহ হাউসবোটগুলি এক একটি স্বয়ংসম্পূর্ণ ইউনিট। করোনার প্রাদুর্ভাবের পরে কেরলে পর্যটনের ব্যবসা এখন শিকেয়। ব্যাকওয়াটারের জেটিতে সার দিয়ে বাঁধা পড়ে রয়েছে হাউসবোট।
রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রী কোডামপল্লি সুরেন্দ্রন জানিয়েছেন, ‘আলপ্পুঝা জেলায় হাসপাতালের চেয়ে হোটেল ও রিসর্টের সংখ্যা অনেক বেশি। যদিও আমাদের রাজ্যে করোনা আক্রমণের রেখাচিত্র এখন অনেকটা সমান হয়েছে, তবু প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে হবে। জেলা প্রশাসন হোটেল, রিসর্ট, লজ মিলিয়ে ৬ হাজারের কাছাকাছি আইসোলেশন বেড চিহ্নিত করে রেখেছে। হাউসবোট প্রয়োজনে এই কাজে ব্যবহার করলে আরও ১৫০০ থেকে দু’হাজার বেড রয়েছে |

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *