Uttar Pradesh was the example of communalism

সাম্প্রদায়িকতার নজির গড়লো উত্তরপ্রদেশ

ভাস্বতী দাশ, প্রতিনিধি – দেশের কঠিন পরিস্থিতে হিন্দু মুসলিম বাছবিচার করে না কেউ , আজ আমাদের সামাজিক দূরত্ব হলেও মানসিক দূরত্ব হয়েছে আরও গভীর | জাতপাত ভুলে গড়ে উঠল রক্তের বন্ধন,এরম দৃষ্টান্তের নজির রাখলো উত্তরপ্রদেশ |প্লাজমা কখনো বিভেদ করেনা , মানুষের চেয়ে বড়ো কিছু হয়না |

লকডাউনের মধ্যে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির অনন্য নজির গড়ল উত্তর প্রদেশের শামলী | করিয়ে দিল কাজী নজরুল ইসলাম-এর সেই লেখা ‘একই বৃন্তে দুটি কুসুম হিন্দু মুসলমান’ | ধর্মভেদ ভুলে গিয়ে মুসলমান বৃদ্ধের প্রাণ বাঁচাতে এগিয়ে এল ১০ জন হিন্দু |শামলির বাসিন্দা ৬০ বছর বয়সী নূর মোহাম্মদ প্রায় এক সপ্তাহ ধরে অসুস্থ ছিলেন| প্রয়োজন ছিল দশ ইউনিট রক্ত কিন্তু লকডাউনে রক্তের আকাল | তাই গৃহকর্মী থেকে শুরু করে সরকারী কর্মচারী, রক্তদানের আবেদনকে কেন্দ্র করে একটি রক্তদানের জনতা ভিড় করল | যারা সকলেই জাতে ছিল হিন্দু |

জানা যায়, দু’দিন আগে শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়েছিল নূর মোহাম্মদ -কে |সেখানে চিকিৎসকরা তাঁর পরিবারের সদস্যদের বলেছিলেন, তাঁর দশ ইউনিট রক্তের প্রয়োজন।কিন্তু লকডাউনে রক্ত মেলা দায় |তাই রক্তের প্রয়োজনে চিকিৎসকের মাধ্যমে রক্তের ব্যাঙ্ক অপারেটর অজয় ​​সংগালের সাথে যোগাযোগ করা হয় |এরপর দাতাদের কাছ থেকে রক্তের ব্যবস্থা করা শুরু হয়|গৃহবধূ সীমা মিত্তাল থেকে শুরু করে কালেক্টরেটের কর্মচারী মনোজ কুমার, ১০ জন হিন্দু রক্ত দাতারা এগিয়ে এল।এরা কেউ জাত দেখে রক্ত দেন না|সকলেই মানুষের প্রয়োজনে সর্বদা এগিয়ে আসে|এদিনের এই ঘটনায় ডাক্তার থেকে শুরু করে রোগীর পরিবার সকলেই খুব খুশি হন, গড়ে উঠল রক্তের এক সুন্দর বন্ধন| আজ সত্যি এরম মানুষের দৃষ্টান্ত আরও একবার শেখায় মানবিকতা বড়ো ধর্ম |